February 15, 2021 || 10:46 pm

গণধোলাই জনগণের, দাড়িখুলে পরলো প্রধান বক্তার

 


দ্বিতীয় বক্তার পর ওয়াজ করেছেন প্রধান বক্তা| ওয়াজের মধ্যে প্রধান বক্তার পরিচয় নিয়ে সন্দেহ জাগে বক্তার পিছনে বসা একজন বক্তার মুখের উপর রাখা রুমেল সরাতেই তার আসল পরিচয় বেরিয়ে আসে|পরে গণপিটুনির শিকার হয়ে বক্তা এলাকা ছাড়ে|

 

পরে গণপিটুনির শিকার হয়ে এলাকা ছাড়তে হয় তাকে। সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ফিংড়ী ইউনিয়নের বালিথা ঈদগাহের পশ্চিম পাশে আবুল ফারহা সিদ্দিকীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানা ময়দানে গত শুক্রবার (১২ ফেব্রুয়ারি) ২৫তম বার্ষিক ওয়াজ মাহফিলে এই ঘটনা ঘটে।দ্বিতীয় দিনে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত হওয়ার কথা ছিল ঢাকার আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা মোঃ আবুল কালাম আজাদের|কিন্তু বক্তার কণ্ঠস্বর শুনে শ্রোতাদের সন্দেহ হলে চেয়ারম্যান তার পরিচয় জানতে চাইলে সে কৌশলে দৌড়াইয়া পালাই|

 

ততক্ষণে ভন্ড হুজুরের ভন্ডামি শ্রোতারা ধরতে পেরেছিল এবং ভন্ড হুজুরের মাস্ক খুললে তা প্রমাণিত হয় এবং ভন্ড হুজুর কে উপস্থিত শ্রোতারা গণধোলাই করে| এ বিষয়ে মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষ মোহাম্মদ মুজিবুর রহমান ও তাঁর সহধর্মিনী সালে খাতুনের কাছে জানতে চাইলে তিনি পাঁচ মিনিট পরে কথা বলবেন বলে জানান|

 

পরে অনেক বার ফোন করেও সালে খাতুন বেদেনীর সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি এ কথা বলেছেন সাংবাদিকরা| এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মেহেদী হাসান মেহেদী চিত্র নায়ক| আমির সিরাজী চিত্রনায়ক বলেন প্রিন্টারে ভুল হওয়ায় হুজুরের নাম ভুল হয়েছে|

 

সেনা ভন্ড বক্তা ছিল চিত্র জগতের একজন মেকাপম্যান একজন এডিটর এবং হাফেজ ওয়াজ মাহফিলের এধরনের তীব্র প্রতিবাদ জানান মুসল্লীরা|

 

Related Posts