March 8, 2021 || 2:33 pm

পণ্য ক্রয় করার পরে টাকার পরিবর্তে ছাত্রলীগ পাঠিয়েছে বলে জানান ক্রেতারা।

পণ্য কিনে টাকা না দিয়ে বলছেন ছাত্রলীগের সভাপতি পাঠিয়েছেন :ক্রেতারা।

 

ঘটনাটি ঘটেছে বরিশালে চেইনশপ টপ টেন লিমিটেডের আউটলেট মার্কেটে।

 

ওই মার্কেট থেকে কিছু শপিং করার পর বিক্রেতা টাকা চাইতেই  তারা বলেন, বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতি পাঠিয়েছেন।

 

ছাত্রলীগ সভাপতির পরিচয় দেওয়ার পরেও বিক্রেতা টাকা চাইতে গেলে দোকানে ভাঙচুর শুরু করে।

 

গতকাল রোববার (৭মার্চ ২০২১) সন্ধ্যার এ ঘটনায় ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 

আটককৃত পাঁচজন নিজেদের ছাত্রলীগ কর্মী দাবি করলেও তাদের সঙ্গে ছাত্রলীগের কোনো রকম কোনো সম্পর্ক নেই বলে দলটির নেতারা জানিয়েছেন।

 

ওই আটককৃত ৫ জন ব্যক্তি হলেন হলেন- বরিশাল সরকারি বিএম কলেজের ইতিহাস বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী (রাকিবুল, নোহান, শাহাদৎ,  শুভ্র এবং সজিব) ।

 

এ মার্কেটের ম্যানেজার মো. ওয়াহেদের বরাত দিয়ে ভবন মালিকের প্রতিনিধি আশিকুর রহমান বলেন, সন্ধ্যার সময় ১৫-২০ জন যুবক সদর রোডের ওই শো-রুমে প্রবেশ করেন।

 

তারপর প্রত্যেকে নিজেদের পছন্দমতো বিভিন্ন পণ্য বাছাই করেন।

 

তখন  বিদেশি ব্র্যান্ডের দামি ঘড়ি, প্যান্ট-শার্টসহ বিভিন্ন আইটেমের পণ্য ক্রয়ের জন্য এক পর্যায়ে প্যাকেট করেন।

 

পণ্য প্যাকেট করার পরে ম্যানেজারের কাছে এসে মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতি জসিম উদ্দিন আমাদের পাঠিয়েছে বলে জানান। এবং পণ্যের মূল্য দিতে অস্বীকৃতি জানান।

 

শোরুমের কর্মচারীরা প্রতিবাদ করতে গেলে দোকানপাট ভাঙচুর শুরু করে।

 

এবং মার্কেট ছেড়ে যাবার চেষ্টা করাতে শোরুমের কর্মচারীরা পাঁচজনকে আটক করে পুলিশ কে খবর দেয়, পরে পুলিশ গ্রেফতার করে তাদের থানায় নিয়ে যায়।

 

ছাত্রলীগের সভাপতি জসিম উদ্দিনকে এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি অস্বীকার করেন।

 

Related Posts