November 12, 2020 || 9:37 pm

28 বছর পর নাগোর্নো-কারাবাখ এর গুরুত্বপূর্ণ শহর গুষা আজানের ধ্বনিতে মুখরিত হল|

ইসলাম পৃথিবীর একমাত্র শ্রেষ্ঠ শান্তির ধর্ম মুসলিমরা মনে করেন| সেই ধর্মই যদি ঠিকমতো পালন করতে না পারে তাহলে ব্যাপারটা কেমন দেখায়! তাই এবার আযানের ধ্বনিতে মুখরিত করল শহরটি|

নাগোর্নো ও কারাবাখ অঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ শহর গুষায় |আযানের ধ্বনি শোনা গেল দীর্ঘ 28 বছর পর।আজান দিয়েছেন, আজাইবাইজানের একজন সৈন্য সেখানকার বিখ্যাত ইউখারি গোভার আঘা মসজিদের মিনারে ওঠে,  এমন একটি ভিডিও সামনে এসেছে।

সম্প্রতি গুষা শহরটি আর্মেনিয়ার অবৈধ দখল থেকে মুক্ত করেছে আজারবাইজানের সেনারা। তুর্কি সংবাদ সংস্থা আদাদোলু অ্যাজেন্সি জানায়, ১৯৯২ সালের ৮ মে আর্মেনিয়া সেনাবাহিনী গুষা অঞ্চলটি দখল করে নেয়। নাগোর্নো ও কারাবাখের সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ এলাকা গুষা। আন্তর্জাতিকভাবে এটি আজারবাইজানের বলে স্বীকৃতি ছিল।

গত ৮ নভেম্বর আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ ঘোষণা দেন, গুষা নগর আর্মেনিয়া থেকে স্বাধীনতা লাভ করেছে।গুষায় আজান শোনা যায়  দীর্ঘ ২৮ বছর পর।

রাশিয়ার মধ্যস্থতায় আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে যুদ্ধ বন্ধের চুক্তি হয় গত ১০ নভেম্বর। চুক্তির পর ইলহাম আলিয়েভ জানান, কোনো রক্তপাত ছাড়াই আজারবাইজান তাদের নাগোর্নো ও কারাবাখ অঞ্চল ফেরত পাবে।

এর আগে গত ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে আর্মেনিয়ার সেনাবাহিনী ও আজারবাইজান সেনাবাহিনীর মধ্যে যুদ্ধ শুরু হয়। দুই দেশের সংঘাতের মূলে ছিল নাগোর্নো ও কারাবাখ অঞ্চল।

Related Posts